ক্ষমতায় থেকেই পুলিশের বেধড়ক পিটুনি খেল আ.লীগ নেতাকর্মীরা (ভিডিও)

আহরাম বিডি

বুধবার সোহরাওয়ার্দি উদ্যানে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ উপলক্ষে এক বিশাল জনসভার আয়োজন করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন শেখ হাসিনা।

এদিকে সভায় যোগ দিতে যাওয়ার সময় হাতিরঝিল দিয়ে আসতে গেলে আওয়ামী লীগের একটি গ্রুপকে বেধড়ক পিটিয়েছে পুলিশ। পুলিশের কথা না শুনায় তাদেরকে বেধড়ক পেটানো হয়।

ক্ষমতায় থেকেও দলের নেতাকর্মীরা এমন পিটুনি খাওয়ায় ঘটনাটি ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছে। ইতোমধ্যেই পুলিশের পিটুনির সেই ভিডিওটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

এদিকে হাতিরঝিলে অন্যায় করায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদেরকে পুলিশ পিটুনি দিলেও, রাজধানীর বিভিন্ন যায়গায় গতকাল ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী কর্তৃক নারীর শ্লীলতাহানি ও যৌন হয়রানির সময় পুলিশ তেমন কোনো একশন নেয়নি।

জনসভার বাইরে কিছু ঘটলে তার দায় আওয়ামী লীগের না: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জনসমাবেশে বা সভাস্থলে যদি কিছু না ঘটে থাকে তবে তার দায় আওয়ামী লীগের না। এটা আমাদের দলের বিষয় না। তবে বাইরে কিছু ঘটে থাকলে তার দায় সরকারের আছে। কোথাও যদি কিছু ঘটে থাকে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন খতিয়ে দেখছেন, ব্যবস্থা নেয়া হবে। খবর যুগান্তরের।

কাদের বলেন, আমরা বিগত দিনে এ ধরনের ঘটনায় কাউকে ছাড় দেইনি। বুধবারের ঘটনাতেও কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

বৃহস্পতিবার বিকালে আওয়ামী লীগের ধানমন্ডির নির্বাচন পরিচালনা কার্যালয়ে দলটির দফতর উপকমিটির প্রথম বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।

বিকাল ৪টায় দফতর উপকমিটির সদস্যের সঙ্গে একান্তে বৈঠকে বসেন ওবায়দুল কাদের। বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি। এরপর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

জনসভায় কোনো ব্যক্তি বা দলকে আক্রমণ করে প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য দেননি দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এগিয়ে যাওয়া জাতির মুক্তির রূপরেখা ঘোষণা করেছেন। তিনি কথা বলেছেন আগামী নির্বাচন নিয়ে। সে নির্বাচনে যাতে কোনো জঙ্গিবাদী, সাম্প্রদায়িক শক্তি ক্ষমতায় আসতে না পারে। এতে বিএনপির অন্তর্জ্বালা কেন?

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সামনে নির্বাচন। দলের সভানেত্রী হিসেবে তিনি সমাবেশে ভোট চাইতেই পারেন। এটা তো কারো আঁতে ঘাঁ লাগা বা অন্তর্জ্বালার বিষয় না!

‘সিনিয়র নেতাদের গ্রেফতার করা হয়েছে’ বিএনপির এমন অভিযোগ নিয়ে করা অপর প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, সিনিয়র নেতা যাদেরকে বুঝায় এমন কোনো নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে আমার জানা নেই।

তিনি বলেন, বুধবার দেখলাম বিএনপির যারা সিনিয়র নেতা তারা কারাগারে গিয়ে দলটির চেয়ারপারসনের সঙ্গে দেখা করেছেন। ঘন্টাব্যাপী কথা বলেছেন। দেখলাম তারা হাসিমুখে বেরিয়ে এসেছেন।

বিএনপি নিজেরাই কর্মসূচি দিয়ে মারামারি, হাতাহাতি করে মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, এর দায় তারা সরকারের ওপর চাপাতে চায়। সব বিষয়ে তারা সরকার নামের নন্দনালের ঘাড়ে দোষ দেয়।

Facebook Comments

comments