খালেদার বিরুদ্ধে মহড়া দিতে গিয়ে পরপারে ছাত্রলীগ নেতা

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়কে কেন্দ্র করে বের করা মোটরসাইকেল মহড়ায় অংশ নিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন ছাত্রলীগ নেতা। ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে মহড়ার সময় মোটরসাইকেল উল্টে আহত হন তিনি। আজ শুক্রবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এ ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী আরও দুই ছাত্রলীগ কর্মী আহত হয়েছেন।

নিহত ছাত্রলীগ নেতা হলেন বুলবুল আহাম্মেদ (২৬)। তিনি সাভার পৌর ছাত্রলীগের সহসভাপতি ছিলেন। বুলবুল রাজধানীর মিরপুর বাংলা কলেজ থেকে গত বছর অর্থনীতিতে এম এ পাস করেন। তাঁর বাবা বোরহান উদ্দিন একজন পুলিশ সদস্য। বাড়ি মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলার বানিয়াঘোনা গ্রামে। তাঁরা সাভার পৌরসভার ডগরমোড়া এলাকায় বসবাস করতেন।
আহত দুই কর্মী হলেন এনায়েত হোসেন ও রনি।

পুলিশ, বুলবুলের পরিবার ও দলীয় সূত্রে জানা গেছে, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়কে কেন্দ্র করে উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগ গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে মোটরসাইকেলে মহড়া দেয়। মহড়ার সময় বেলা সাড়ে ১১টার দিকে একটি বুলবুল, এনায়েত ও রনিকে বহনকারী মোটরসাইকেলটি উল্টে গেলে তাঁরা আহত হন। তাঁদের উদ্ধার করে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে বুলবুল ও এনায়েতকে ভর্তি করা হয়। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয় রনিকে। ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ ভোরে বুলবুল মারা যান।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এনায়েত প্রথম আলোকে বলেন, মহড়ায় অর্ধশতাধিক মোটরসাইকেলে ছাত্রলীগের দেড় শতাধিক নেতা-কর্মী অংশ নেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতাও ছোট গাড়িতে তাঁদের সঙ্গে ছিলেন। তিনি (এনায়েত), বুলবুল আর রনি এক মোটরসাইকেলে ছিলেন। মোটরসাইকেলটি চালাচ্ছিলেন তিনি নিজেই। বুলবুল বসে ছিলেন মোটরসাইকেলের পেছনে।

তিনি বলেন, সব কটি মোটরসাইকেল দ্রুতগতিতে চলছিল। তাঁরা সাভার বাসস্ট্যান্ড থেকে গাবতলীর দিকে যাচ্ছিলেন। জোড়পোল এলাকায় পৌঁছালে পেছন থেকে অপর একটি মোটরসাইকেলের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে তাঁদের মোটরসাইকেলটি উল্টে যায়। এরপর তাঁর কিছু মনে নেই।

নিহত বুলবুলের ছোট ভাই নাজমুল হাসান জানান, মোটরসাইকেল উল্টে তাঁর ভাই সড়ক বিভাজকের সঙ্গে সজোরে ধাক্কা খেয়ে ছিটকে সড়কের পাশের গাছের সঙ্গে আবার ধাক্কা খায়। মাথায় আঘাতের কারণে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা।

সাভার পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আতাউর রহমান বলেন, মোটরসাইকেল মহড়া দিতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে বুলবুল মারা গেছেন। তিনি পৌর ছাত্রলীগের সহসভাপতি ছিলেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে স্থানীয় সংসদ সদস্য (ঢাকা-১৯ আসন) মো. এনামুর রহমান বলেন, ‘কেন্দ্র থেকে সব ধরনের মহড়া ও শোভাযাত্রা করতে নিষেধ করা হয়েছিল। আমরাও নিষেধ করেছিলাম। এরপরও ছাত্রলীগ মহড়া দিয়েছে। এই মহড়ার কারণেই একজনকে লাশ হয়ে ঘরে ফিরতে হয়েছে; যা খুবই দুঃখজনক।’

সাভার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসিনুল কাদির বলেন, ‘মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ছাত্রলীগের এক নেতার মৃত্যুর কথা শুনেছি। তবে কোনো অভিযোগ পাইনি।’

সূত্র: প্রথম আলো

Facebook Comments

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here