খালেদা জিয়া হবেন পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হবেন বলে মন্তব্য করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার পক্ষে যুক্তি উপস্থাপনের সময় তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘এই মামলায় খালেদা জিয়ার কোনও ক্ষতি হবে বলে আমি মনে করি না। বরং তার জনপ্রিয়তা আরও বাড়বে। তিনি হবেন দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী।’

মঙ্গলবার সকালে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দশম দিনের মতো যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুরু করেন তার আইনজীবী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। আজ খালেদা জিয়ার পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন শেষ করেন তিনি।

মওদুদ বলেন, ‘এই মামলাটি তিনটি বিষয়ের ওপর। বিষয়গুলো ভালোভাবে বিশ্লেষণ করলে অনেক আগেই মামলাটি খারিজ হয়ে যেত। যেহেতু মামলাটি রাজনৈতিক, তাই খালেদা জিয়াকে রাজনৈতিকভাবে হয়রানি করতে এটা করা হয়েছে।’

আদালতে তিনি বলেন, ‘এই মামলার কোনও কাগজে উনার (খালেদা জিয়ার) সই নেই। ঘষামাজা করে এই মামলার বিচার কাজ চলছে, আসলে এভাবে মামলাটি চলতে পারে না। আজকে যে আইনে বিচার চলছে, এই আইনটি হচ্ছে আমাদের (বিএনপি) সময় করা। এই আইনটি অনেক গবেষণা করে আমরা করেছিলাম। কিন্তু আমরা দেখি এই আইনটি প্রয়োগ করা হয় শুধু বিরোধী দলের জন্য। যেমনটি করেছিলেন, ফখরুদ্দিন-মঈন ইউ আহমেদ, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিরুদ্ধে তারা ১৪টি মামলা দিয়ে ১১ মাস কারাগারে রেখেছিলেন। খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে চারটি মামলা দিয়ে ১২ মাসের বেশি সময় কারাগারে রাখা হয়েছিল।’

তিনি আরও বলেন, ‘মাইনাস টু ফর্মুলা করে ফখরুল ও মইন ঈউ আহমেদ ক্ষমতায় এসে দুই নেত্রীকে বিদেশে পাঠিয়ে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু খালেদা জিয়া সেই সমঝোতায় আসেননি। শেখ হাসিনা ঠিকই সমঝোতা করে বিদেশে চলে গেলেন।’

যুক্তি উপস্থাপন শেষে আদালতকে মুওদুদ বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে নিঃশর্তভাবে খালাস করে দেবেন বলে আমরা আশা করছি।’

সূত্র: যুগান্তর

Facebook Comments

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here