ভারতীয় জাদুঘরে জিয়াকে স্বাধীনতার ঘোষক হিসেবে উপস্থাপন

কলকাতায় অবস্থিত ভারতীয় জাতীয় জাদুঘরে বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ছবি প্রদর্শিত আছে। সেখানে জিয়াউর রহমানের পরিচয় বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি। সেখানে আরও লেখা রয়েছে ‘১৯৭১ সালে মুক্তিযোদ্ধাদের অক্লান্ত পরিশ্রমের পরে স্বাধীন হয় বাংলাদেশ। স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি তিনি। তিনিই জাতির উদ্দেশে বাংলাদেশের স্বাধীনতার কথা প্রথম ঘোষণা করেন।’  খবর আমাদের সময়ের।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে জিয়াউর রহমান ছাড়া আর কোনো পরিচিত মুখের মুক্তিযোদ্ধার ছবি ওই জাদুঘরে নেই। তবে যুদ্ধের একটি ছবি আছে যেখানে এই প্রতিবেদকের পরিচিত কেউ নেই। তবে জিয়াউর রহমানের ছবিও সেখানে মুক্তিযোদ্ধার পরিচয়ে নেই, আছে বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি হিসেবে। জিয়ার ছবিটি যোদ্ধার নয়, সামরিক পোশাকেও নয়, সিভিল পোশাকে।

ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল মিউজিয়াম এর ঠিকানা : ২৭ জওহরলাল নেহেরু রোড, কলোটলা, নিউমার্কেট এরিয়া, ধর্মতলা, সুলতানা, কলকাতা-৭০০০১৬।

কলকাতার রাস্তায় জিয়াউর রহমানের ছবি

শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের নামে অনেক আগেই তুরষ্কের রাজধানী আঙ্কারা শহরের প্রানকেন্দ্রে ১.৮ কিমি দীর্ঘ একটি সড়কের নামকরণ করা হয়েছে। ২০১৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো শহরেও শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের নামে একটি সড়কের নামকরণ করা হয়েছে।

গত দু্ইদিন সামাজিক মাধ্যমে ভারতের কোলকাতা শহরের সড়কে একটি ফেস্টুনে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ছবি ভাইরাল হয়েছে।

বৃটিশ শাসনকালের শেষ দিকে প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের পিতা মরহুম মনসুর রহমান যখন কোলকাতায় সরকারি দফতরে কেমিস্ট হিসেবে কর্মরত ছিলেন, তখন কিশোর জিয়া ঐ শহরের প্রখ্যাত হেয়ার স্কুলে পড়ালেখা করেছেন।

১৮১৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হেয়ার স্কুল আগামী বছর প্রতিষ্ঠার দুইশত বার্ষিকী পালন করবে। সেই উপলক্ষে স্কুলের প্রাক্তন ছাত্রদের সংগঠন ‘হেয়ার স্কুল এলামনাই এ্যাসোসিয়েশন’ তাদের স্কুলের সকল বিখ্যাত প্রাক্তন ছাত্রদের ছবি দিয়ে ফেস্টুন তৈরী করে কোলকাতার বিভিন্ন সড়কে টানিয়ে দিয়েছে।

স্কুলটির এলামনাই ওয়েবপেজে গেলে দেখা যায়, সেখানে কীর্তিমান প্রাক্তন ছাত্রদের একটি পাতা রয়েছে; যেখানে দিন বন্ধু মিত্র, স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু, আচার্য প্রফুল্ল চন্দ্র রায়, রমেশ চন্দ্র দত্ত, রামতনু লাহিড়ীসহ শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ছবি ও নাম স্থান পেয়েছে।

হেয়ার স্কুল এলামনাইয়ের ওয়েবসাইট দেখতে (এখানে ক্লিক করুন)

উল্লেখ্য, স্কটল্যান্ডের ঘড়ি নির্মাতা ও ব্যবসায়ী ডেভিড হেয়ার এই স্কুলটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

Facebook Comments

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here